অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়ম ২০২২

জন্ম নিবন্ধন আবেদনঃ আপনি যদি আপনার শিশু বা অন্য কারো অনলাইনে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে চান, তবে এই পোস্ট আপনার জন্য। কারণ অনলাইনে কীভাবে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন পত্র (Jonmo Nibondhon Form Online)পূরণ করবেন এবং কীভাবে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ফর্মটি নির্ভুলভাবে পূরণ করবেন তা ছবিসহ নিম্নে বর্ণনা করা হয়েছে।

নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন
নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন

নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন
বর্তমানে হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন ফরম আর পূরণ করে আবেদন করা যায়না তাই প্রত্যেক নাগরিককে অনলাইনে তাদের জন্ম নিবন্ধন করতে হবে। অনলাইনে এই জন্ম নিবন্ধনের জন্য কী কী তথ্য প্রয়োজন এবং কীভাবে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে আজকের পোস্টে আপনি নিয়মগুলো জানতে পারবেন।

নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন – Birth Registration Application 

বাংলাদেশসরকারের জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন ২০০৪ অনুসারে 

শিশু জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যে নতুন জন্ম নিবন্ধন করা বাধ্যতামূলক।

বিভিন্ন সমস্যার কারণে জন্ম নিবন্ধন ৪৫ দিনের মধ্যে করতে না পারলেও শিশুর বয়স ৫ বছরের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন করিয়ে নেওয়া উচিত।

এবং বয়স ৫ বছরের বেশি হয়ে থাকে তাহলে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করার জন্য অনেক গুলো অতিরিক্ত তথ্য ও ডকুমেন্ট প্রয়োজন হয় এবং তুলনামূলক ভাবে বেশি ঝামেলা পোহাতে হয়।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়ম – Jonmo Nibondhon Form Online

অনেকেই জানেন না যে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন করার ওয়েবসাইট কোনটি অনলাইনে আবেদনের পুরাতন ওয়েবসাইটটি পরিবর্তন করে নতুন ওয়েবসাইট চালু করা হয়েছে। এখন জন্ম নিবন্ধন নতুন লিংক হচ্ছে https://bdris.gov.bd/

জন্ম নিবন্ধন আবেদনকারীর সকল তথ্য সঠিক ভাবে দিতে হবে । তথ্য দেওয়ার সময় খেয়াল রাখতে হবে কোনো তথ্য যেন ভুল না হয়, তথ্য ভুল হলে পরবর্তীতে সমস্যায় পড়তে হবে। জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার জন্য নিচে দেওয়া ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন এর ধাপ সমূহ
ধাপ ১ঃ জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ
ধাপ ২ঃ নিবন্ধনকারী ব্যক্তির পরিচিতি ও জন্মস্থানের ঠিকানা প্রদান
ধাপ ৩ঃ পিতা ও মাতার তথ্য প্রদান
ধাপ ৪ঃ স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা প্রদান
ধাপ ৫ঃ আবেদনকারীর তথ্য প্রদান করা

ধাপ ১ঃ জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ

জন্ম নিবন্ধনের জন্য প্রথমেই কিছু কাগজপত্র প্রস্তুত রাখতে হবে। এর জন্য বিভিন্ন বয়সের লোকদের জন্য কাগজপত্রেও ভিন্নতা রয়েছে।

শিশুদের জন্ম নিবন্ধন করতে জন্মের পর প্রথম ৪৫ দিনের মধ্যে যে কাগজপত্র গুলো প্রয়োজন হয় তা হলো-

১। শিশুর এক কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
২। জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে আবেদনকৃত ফর্মের প্রিন্ট কপি।
৩। শিশুর ইপিআই কার্ড বা টিকা কার্ড।
৪। আবেদনকারী পিতা-মাতা/ অভিভাবকের মোবাইল নম্বর
৫। বাংলা-ইংরেজি দুই ভাষাতেই পিতা ও মাতার অনলাইনে নিবন্ধিত জন্ম সনদ(বাংলা ও ইংরেজি বাধ্যতামূলক)।
৬। বাবা-মার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি
৭। শিশুর যে কোন একজন অভিভাবকের কর পরিশোধের প্রমাণ।

৪৬ দিনে থেকে ৫ বছর বয়সী শিশুর ক্ষেত্রে উপরোক্ত সবগুলো কাগজপত্রই লাগবে।

৫ বছরের বেশি বয়সী শিশু অথবা যেকোনো ব্যক্তির ক্ষেত্রে-

১। জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে আবেদনকৃত ফর্মের প্রিন্ট কপি।
২। শিশুর এক কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
৩। বয়স প্রমাণের জন্য চিকিৎসক কর্তৃক প্রত্যয়ন পত্র (বাংলাদেশ মেডিক্যাল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল কর্তৃক স্বীকৃত এমবিবিএস বা তদূর্ধ্ব ডিগ্রিধারী)।
৪। পিএসসি(প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী), জেএসসি (জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট) বা এসএসসি (মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট) বা এর সমমানের সার্টিফিকেট।
৫। বাবা-মায়ের অনলাইন জন্ম নিবন্ধন (বাংলা ও ইংরেজি বাধ্যতামূলক) কপি।
৬। পিতা ও মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র।
৭। জন্মস্থান বা স্থায়ী ঠিকানা প্রমাণ করার জন্য বাবা/মা/দাদা/দাদির তারা স্বনামে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে উল্লেখিত জায়গার বিপরীতে নবায়নকৃত কর প্রদানের প্রমাণপত্র
অথবা, বাসস্থান প্রমাণের সাপেক্ষে পৌরসভার চেয়ারম্যান বা ওয়ার্ড কাউন্সিলরের দ্বারা স্বাক্ষরিত প্রত্যয়নপত্র।

ধাপ ২ঃ নিবন্ধনকারী ব্যক্তির পরিচিতি ও জন্মস্থানের ঠিকানা প্রদান

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদনের জন্য প্রথমে আপনাকে জন্ম নিবন্ধন এর ওয়েবসাইট https://bdris.gov.bd/ এই লিংকে ভিজিট করতে হবে। সেখানে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ করতে পারবেন। ভিজিট করার পরে নিচের ছবির মত একটি পেইজ দেখতে পাবেন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ
জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ

আপনি যেই ঠিকানায় জন্ম নিবন্ধন করাতে চান, তা এখানে বাছাই করুন।
জন্ম নিবন্ধন ফরম পূরণ করার নিয়ম
জন্ম নিবন্ধন ফরম পূরণ করার নিয়ম


অর্থাৎ যে ব্যক্তি জন্ম নিবন্ধন করবেন, তার জন্মস্থান এর ইউনিয়ন পরিষদ অথবা পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশন থেকে জন্ম নিবন্ধন করতে চান তা নির্বাচন করে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন।

যদি নামের দুটি অংশে থাকে তাহলে প্রথম অংশটি নামের প্রথম অংশের ঘরে লিখবেন এবং দ্বিতীয় অংশটি নামের শেষের অংশের ঘরে লিখবেন, আর যদি নাম তিনটি অংশে থাকে তাহলে প্রথম দুইটি অংশ নামের প্রথম অংশের ঘরে লিখতে হবে এবং তারপর দ্বিতীয় অংশটা নামের শেষের অংশের ঘরে লিখুন।

একই ভাবে ইংরেজিতে পূরণ করবেন। এছাড়াও, অন্যান্য তথ্যসমূহ জন্মস্থানের ঠিকানা সঠিকভাবে পূরণ করুন।

তারপর ডান দিকের পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ৩ঃ পিতা ও মাতার তথ্য প্রদান

এই ধাপে, নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির বা শিশু পিতামাতার অনলাইন বা ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন নম্বর এবং জাতীয়তা প্রদান করতে হবে।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ
অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ


এরপর আপনার পিতা-মাতার ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন নম্বর প্রবেশ করার পরে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নামগুলি আসবে, আপনি সম্পাদনা করতে পারবেন না।

এ কারনে, আপনাকে আগে আপনার পিতা-মাতার জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল বা অনলাইন কিনা তা অবশ্যই যাচাই করে নিতে হবে। যদি পিতা-মাতার জন্ম সনদ তথ্য অনলাইনে না থাকে তবে শিশুর জন্ম নিবন্ধন আবেদন করা যাবে না।

জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল কিনা তা জানতে এখানে ক্লিক করুন

যাইহোক, যদি নিবন্ধনকারী ব্যক্তির জন্ম তারিখ ২০০০ সাল বা তার আগে হয়, তাহলে আপনি বাবা-মায়ের নাম দিতে পারেন এবং তাদের জন্ম নিবন্ধন না থাকলে ও সমস্যা নেই।

তথ্য পূরণ করে তারপর ডান দিকের পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ৪ঃ স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা প্রদান

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদনের এই ধাপে, আপনাকে আপনার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানার তথ্য প্রদান করতে হবে।


অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন
অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন

আপনার স্থায়ী ঠিকানার জন্য, জন্মস্থান এবং স্থায়ী ঠিকানা একই হলে চেক বক্সে (লাল বক্সে চিহ্নিত) টিক দিন। এছাড়াও, বর্তমান ঠিকানার ক্ষেত্রে, স্থায়ী ঠিকানা এবং বর্তমান ঠিকানা একই হলে চেক বক্সে (লাল বাক্সে চিহ্নিত) টিক দিন।

অন্যথায় ঠিকানা যদি একই না হয়, তাহলে ঠিকানা নির্বাচন করুন এবং গ্রাম, বাড়ি এবং রাস্তা নম্বর লিখুন। তারপর পরবর্তী বাটনে চাপ দিন।

ধাপ ৫ঃ আবেদনকারীর তথ্য প্রদান করা

এই পর্যায়ে, যিনি এই জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করছেন তাকে তার নিজের তথ্য দিতে হবে। সাধারণত একজন শিশুর জন্ম নিবন্ধনের জন্য দায়ী ব্যক্তি হলেন পিতা, মাতা বা আইনগত অভিভাবক। তাই তারা শিশু জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করে।

আপনি যদি নিজের জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করে থাকেন। তাহলে  নিজ নির্বাচন করুন।

তারপর পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন।

ফর্মটি সফলভাবে জমা দেওয়ার পরে আপনি প্রিন্ট এবং জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম ডাউনলোড pdf করার অপশন পাবেন। জন্ম নিবন্ধন আবেদন পত্র প্রিন্ট করে আপনার ইউনিয়ন পরিষদ/ পৌরসভা আথবা সিটি কর্পোরেশনে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ জমা দিতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন আবেদনের বর্তমান অবস্থা জানুন এখানে

পরিশেষ

আশাকরি পোস্টটি আপনার ভালো লেগেছে উপরের ধাপ গুলো অনুসরণ করে খুব সহজেই অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ করতে পারবেন, জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন। এছাড়া জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করুন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url