২০২২ সালের টিভি কেনার প্রস্তুতি

টিভি কেনার প্রস্তুতি, বর্তমানে অবসর সময় কাটানোর যত জনপ্রিয় মাধ্যম রয়েছে তার মধ্যে টেলিভিশন অন্যতম। প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই এই ডিভাইসটির ব্যবহার রয়েছে।প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে সাথে গুরুত্বপূর্ণ ডিভাইস টিভিরও ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। বর্তমানে বাজারে আপনারা অনেক ধরনের উন্নত প্রযুক্তির টিভি দেখতে পারবেন যা সাধারণত কিছুদিন আগে ছিলনা। তাই ভবিষ্যৎতে  নতুন সব প্রযুক্তি যুক্ত হবে এই ডিভাইসের সাথে তাতে কোন সন্দেহ নেই। তাই এই ডিজিটাল যুগে টিভি কেনার আগে আপনাদের কিছু বিষয় মাথায় রাখা উচিত। তাই এই ২০২২ সালে আপনাদের টিভি কেনার প্রস্তুতি কেমন হতে পারে সেই সম্পর্কেই আজকের এই পোস্টে আলোচনা করা হবে।

২০২২ সালে টিভি কেনার প্রস্তুতি এবং যা জানতে হবে
এলইডি টিভি

টিভি কেনার আগে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয়টা সেটা হচ্ছে আপনাকে প্রথম পর্যায়ে প্রযুক্তি নির্বাচন করতে হবে। অর্থাৎ বর্তমান বাজারে যে ব্র্যান্ডগুলো খুবই জনপ্রিয় যেমন ওলেড টিভি, লেড টিভি আরো অনেক প্রযুক্তির টিভির হয়েছে এর মধ্য থেকে যে কোন একটি আপনাকে নির্বাচন করতে হবে।তাহলে এর জন্য প্রথমে আপনাদেরকে জানতে হবে যে কোন প্রযুক্তির টিভিটি কেমন গুণগতমানসম্পন্ন সেই বিষয়ে।


এলইডি টিভি

যারা সাধারণত কমবেশি টিভি সম্পর্কে ধারণা রাখেন তারা অবশ্যই জানেন এলইডি টিভি অনেক উন্নত। এলইডি টিভি সাধারণত আমাদের ব্যবহার করা টিভি গুলোকে নতুন একটি জীবন আকৃতি দিয়েছে যার মাধ্যমে আমাদের ব্যবহার করা টিভিগুলো এখন স্মার্ট টিভিতে পরিণত হয়েছে।



এলইডি টিভির বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটি ব্যাকলিট প্রযুক্তি সম্পন্ন। যা ব্যবহার করে মূলত ছবি তৈরিতে সমস্ত ক্রিস্টাল কে একটি প্যানেল হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আগে আমরা যে সকল টিভি ব্যবহার করতাম সেগুলো হচ্ছে এলসিডি টিভি। এসব টিভিগুলোর থেকে এখনকার এলইডি টিভি অনেকটা ভালো প্রযুক্তি সম্পন্ন। 


ওয়েল্ড  টিভি 

এলইডি টিভির মতো উন্নত প্রযুক্তি দ্বারা তৈরি এই টিভিগুলো। সাধারণত এদের মধ্যে তেমন একটা বেশি পার্থক্য নেই।বর্তমানে এলইডি টিভির আপডেট ভার্সন হচ্ছে ওলেড টিভি। আর ওলেড  টিভি অন্য পার্থক্যটি হচ্ছে এলইডি টিভির সাথে এটি ব্যাকলিট প্রযুক্তি ব্যবহার না করে প্রতিটি পিক্সেল কে আলাদা আলাদাভাবে লাইট আপ করে একসাথে ছবি তৈরি করে।যার কারণে এলইডি টিভি এলইডি টিভি গুলোর দাম অনেকাংশে বেশি হয়ে থাকে। 

ওয়েল্ড  টিভি

কিউ লেড টিভি

সাধারণত এলইডি টিভির সর্বশেষ ভার্সন এসেছে তার নাম হচ্ছে কিলেড।বর্তমানে এই টিভিগুলোতে যে প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে শুধুমাত্র সেই প্রযুক্তিগুলো স্যামসাং তাদের স্মার্টফোনে ব্যবহার করেছে। তাহলে এতক্ষণে অবশ্যই বুঝে গিয়েছেন যে এই টিভিগুলো কতটা আপডেট।


টিভি কেনার আগে যে সলল বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে

আমি এর আগেও বলেছি যে টিভি হচ্ছে অবসর সময় কাটানোর সবচেয়ে সেরা একটি মাধ্যম।তাই টিভি কেনার আগে আপনাদের অবশ্যই কিছু বিষয় সম্পর্কে জেনে নেওয়া ভালো।টিভি কেনার আগে যে সব গুরুত্বপূর্ণ জিনিস সম্পর্কে জানতে হবে। যেমন:



  • ওয়ারেন্টি সম্পর্কে জানতে হবে 


  • দাম সম্পর্কে জানতে হবে 


  • পোর্ট সম্পর্কে জানতে হবে 


  • অডিও সম্পর্কে জানতে হবে 


টিভি কেনার আগে অডিও সম্পর্কে যা জানতে হবে 

টিভি দেখার আনন্দ যেমন অনেকটা ভিডিও রেজুলেশন এর উপর নির্ভর করে থাকে তেমনি যদি আপনি যদি টিভি দেখার মজাটা পরিপূর্ণ নিতে চান তাহলে টিভির সাউন্ড কোয়ালিটি ভালো হতে হবে। তাই অবশ্যই আপনি যে টিভিটা নিবেন সেটি আগে ভালো করে চেক করে নেবেন যেন টিভির সাউন্ড কোয়ালিটিটা অনেক সুন্দর হয়।


টিভি কেনার আগে রেজুলেশন প্রযুক্তি সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিতে হবে 

আপনি টিভি দেখবেন অবসর সময় কাটানোর জন্য আর যদি সেই টিভির রেজুলেশন ভালো না হয় তাহলে কিন্তু আপনার টিভি দেখতে মন বলবে না। আপনার টিভির রেজুলেশন যত বেশি হবে তত স্পষ্ট ভিডিও দেখতে পারবেন সেই টিভির মাধ্যমে। 


বর্তমান সময়ে বাজারে আপনারা জিটিভি গুলো পাবেন বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সেই সকল টিভি গুলোর রেজুলেশন হয়ে থাকে ৪হাজার থেকে আট হাজারের মধ্যে।তাই রেজুলেশনের দিক থেকে চিন্তা করলে আপনি যদি টিভি কিনে থাকেন তাহলে সর্বনিম্ন চার হাজার রাখার চেষ্টা করবেন। 


পোর্ট সম্পর্কে জানতে হবে 

টিভি কেনার আগে আপনাকে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ভালো করে দেখতে হবে সেটি হচ্ছে পোর্ট সংখ্যা।বর্তমানে স্মার্ট টিভি গুলো অনেক কাজের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে যেমন ডিস ক্যাবল,স্যাটেলাইট চ্যানেল, ওয়াইফাই আরো অনেক কিছু।তাই আপনি স্মার্ট টিভি কেনার আগে এই সকল পোর্টগুলো সঠিক আছে কিনা সেসব বিষয় গুলো ভালো করে যাচাই করে দেখুন এবং তারপরে টিভি কিনুন। 


ওয়ারেন্টি সম্পর্কে জানতে হবে 

টিভি কেনার আগে এই বিষয়টি সম্পর্কে জানা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমানে যে স্মার্ট টিভি গুলো বাজারে কিনতে পাওয়া যায় সেগুলোর দাম মোটামুটি ভালই থাকে তাই সে ক্ষেত্রে তারা ওয়ারেন্টিও দিবে।বর্তমান বাজারে আপনারা যে সকল টিভি গুলো পাবেন সেগুলোতে দুই ধরনের ওয়ারেন্টি দেওয়া হয়ে থাকে।একটি হচ্ছে মূলত পার্টস ওয়ারেন্টি এবং অন্যটি হচ্ছে সার্ভিস ওয়ারেন্টি।তাই যেখান থেকে টিভি পার্টস এর ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে আপনি সেখান থেকে টিভি নেওয়ার চেষ্টা করুন। কেননা দাম একটু বেশি হলেও পরবর্তীতে আপনার টিভিতে যদি কোন সমস্যা হয় আপনি বিনা খরচে সেটা ঠিক করতে পারবেন।


টিভি কেনার আগে দাম সম্পর্কে জানতে হবে 

টিভি কেনার আগে অবশ্যই আপনাকে দাম সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিতে হবে। কেননা আপনি যে টিভিতে কিনতে যাচ্ছেন সেটির বাজার রেট কত এবং আপনি যেখান থেকে কিনছেন সেটি আপনার কাছ থেকে কত দাম নিচ্ছে এই সম্পর্কে আপনাকে ভালোভাবে জানতে হবে। আর টিভির বর্তমান দাম জেনে নিতে পারবেন বিডিস্টলের অনলাইন ওয়েবসাইট থেকে। আপনারা মোটামুটি এই জিনিসগুলো সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পারলেই খুব সহজেই ভালো একটি টিভি আপনি কিনে নিয়ে আনতে পারবে। আপনি এইভাবে চাইলে ২০২২ সালে টিভি কেনার সঠিক প্রস্তুতি নিতে পারেন। 


Next Post Previous Post
1 Comments
  • Jihad
    Jihad ১৪ জানুয়ারী, ২০২২ ৯:১৮ AM

    খুব ভালো পোস্ট

Add Comment
comment url