আইসোটোপ কাকে বলে?

আইসোটোপ (Isotope) কাকে বলে?

“যেসব পরমাণুর সমান সংখ্যক প্রোটন আছে কিন্তু বাকি সংখ্যা ভিন্ন ভিন্ন হয় তাদেরকে আইসোটোপ বলে।

উদাহরণস্বরূপ, কার্বনের বেশিরভাগ পরমাণুতে 6 টি প্রোটন এবং 6 টি নিউট্রন থাকে। কিন্তু কার্বনের কিছু পরমাণুতে 6 বা 7 নিউট্রন থাকে। সুতরাং কার্বনের তিনটি আইসোটোপ রয়েছে।

আবার, হাইড্রোজেনের অধিকাংশ পরমাণুর নিউট্রন নেই (চিত্র A তে পরমাণু)। সুতরাং তাদের ভর হল ১। এদের ভর ২। হাইড্রোজেনের কিছু পরমাণু, যেমন চিত্র গ- এর পরমাণুতে দুটি নিউট্রন থাকে। তাদের ভরসংখ্যা ৩।

চিত্রে তিনটি পারমাণবিক হাইড্রোজেনের তিনটি আইসোটোপ।

আইসোটোপ কাকে বলে?
চিত্র A


প্রোটন সংখ্যা এক হওয়ার কারণে এদের পারমাণবিক সংখ্যা এবং ইলেকট্রনিক বিন্যাসও এক। ফলস্বরূপ, তারা একই শারীরিক এবং রাসায়নিক বৈশিষ্ট্য দেখায়। তাই মূলত তারা একই মৌলের বিভিন্ন ভরের পরমাণু।

মনে রাখতে হবে: একটি আইসোটোপে প্রোটনের সংখ্যা একই। মনে রাখার সুবিধার জন্য যে প্রোটন এবং আইসোটোপ উভয়েরই 'পি' আছে, এই মিলটি মনে রাখা যেতে পারে।

আইসোটোপের উদাহরণ

কার্বন -12, কার্বন -13, এবং কার্বন -14 হল যথাক্রমে 12, 13, এবং 14 সংখ্যার মৌল কার্বনের তিনটি আইসোটোপ। কার্বনের পারমাণবিক সংখ্যা 6, যার অর্থ হল প্রতিটি কার্বন পরমাণুতে 6 টি প্রোটন থাকে যাতে এই আইসোটোপগুলির নিউট্রন সংখ্যা যথাক্রমে 6, 7 এবং 8 হয়।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url